ইন্টারমিটেন্ট ফাস্টিং: জনপ্রিয় একটি ডায়েট পদ্ধতি

যান্ত্রিক এই যুগে নিজের জন্য সময় কোথায় ? আর এই কর্ম ব্যস্ততার মাঝে আমাদের নিত্য দিনের সঙ্গী ফাস্টফুড আমাদের অজান্তেই কখন যে আমাদের দেহের স্থুলতা বৃদ্ধির প্রধান কারন হয়ে গেছে তা হয়তো আমরা লক্ষই করিনি কিন্তু যখন এই স্থুলতা বিভিন্ন রোগের কারন হয়ে যায় তখন তাদের এই স্থুলতা নিয়ে বেশ চিন্তিত থাকতে দেখা যায়তখন তারা ডাক্তারের শরণাপন্ন হয় এবং বিভিন্ন ডায়েট চার্ট ফলো করে

 যে ডায়েট পদ্ধতিগুলো বর্তমানে সারা পৃথিবীতে জনপ্রিয়তা লাভ করেছে তার মধ্যে অন্যতম হলো ইন্টারমিটেন্ট ফাস্টিং বা Lean Gain Protocol. তুলনামূলক সহজ এই পদ্ধতিতে অনেকেই ওজন কমাতে সক্ষম হয়েছে

 

তাহলে চলুন জেনে নেই কি এই ইন্টারমিটেন্ট ফাস্টিং

সহজ বাংলায় বলতে গেলে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত উপোস থাকার নাম ইন্টারমিটেন্ট ফাস্টিং বা Lean Gain Protocol. যা এক ধরনের খাদ্যাভাস যেটি আপনার ওজন কমাতে  সাহায্য করবেতবে এসময় প্রচুর পরিমাণ পানি খেতে হবে

 

ইন্টারমিটেন্ট ফাস্টিং এর নিয়ম:

ভিন্ন ভিন্ন উপায়ে করা যায় এই ফাস্টিংএখানে শুধু জনপ্রীয় কিছু নিয়মের কথা আলোচনা করা হলো :

উপায়  ১ :

১৬/৮ ঘন্টা সিস্টেম

মার্টিন বেরখান নামক এক পুষ্টিবিদ এই সিস্টেম আবিষ্কার করেছেনএই সিস্টেমে ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১৬ ঘন্টা উপোস থাকতে হবে এবং বাকি ৮ ঘন্টার মধ্যে খাওয়া দাওয়া করতে হবেযেমন ধরুন আপনি সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত খাবেন, বাকি সময় অর্থাৎ ৪ টার পর থেকে পরদিন সকাল ৮টা পর্যন্ত না খেয়ে থাকবেনখাবারের সময়টুকু ১২০০ কিলো ক্যালরি খাবার ২ বার কিংবা ৩ বারে ভাগ করে খাবেন

কর্মজীবী মহিলারা বা ৩০ এর বেশি বয়সের মোটা মানুষেরা এই পদ্ধতি ফলো করতে পারেন

উপায় ২ :

ONE MEAL A DAY

এই পদ্ধতিতে আপনি দিনে মাত্র এক বেলা খেতে পারবেন এবং সেটা হতে হবে সকাল বেলাতখন পেট ভরে খাবেন এবং প্রোটিন একটু বেশি খাওয়ার চেষ্টা করবেন একবেলা খাবারের কোন বাধ বিচার নেই যা ইচ্ছা খেতে পারেনতবে খুব শক্ত মানসিকতার মানুষরাই এই পদ্ধতি ফলো করতে পারেএই পদ্ধতি যারা অতিরিক্ত স্থুলতায় ভুগছে তাদের জন্য প্রযোজ্য

উপায় ৩ :

/২ ডায়েট

বৃটিশ ডাঃ মাইকেল মোসলে এই সিস্টেম চালু করেছেনএই সিস্টেমে আপনি সপ্তাহে ৭ দিনের মধ্যে ৫ দিন স্বাভাবিক খাবার খাবেন এবং বাকি ২ দিন ৫০০-৬০০ কিলোক্যালরি খাবার খাবেন

যারা আর ওজন কমাতে চাননা শুধুমাত্র ওজন মেইন্টেইন করতে চান শুধুমাত্র তারাই এটা করবেন কারন এই পদ্ধতিতে ওজন কমবেনা

উপায় ৪ :

সপ্তাহে ২ দিন পুরোপুরি না খেয়ে থাকবেন এবং বাকি ৫ দিন স্বাভাবিক খাবার খাবেনএখানে ২ দিনে পানি, কফি,  চা বাদে আর কিছুই খাবেননা

যারা ওজন মেইনটেইন করতে চান শুধু তারা করবেনওজন কমানোর ক্ষেত্রে এ পদ্ধতি কার্যকর না

এবার জেনে নেই কারা করতে পারবেনা এই ফাস্টিং :

(১৮ বছরের কম এবং৫০ বছরের বেশি লোকজন

() গর্ভবতী এবং স্তন্যদানকারী মা।

() খুব খারাপভাবে গ্যাস্টিকের সমস্যা আছে যাদের

 

ইন্টারমিটেন্ট ফাস্টিং চলার সময় চা, কফি, পানি, স্যালাইন, ওষুধ খেতে পারবেন

Photo Source: Doctoroz.com

আর খাবারের সময় শাক-সবজি, ফলমুল পুষ্টিকর খাবার খাবেনযারা ২ মাসের বেশি করতে চান তাদের ডাক্তাররা মাল্টিভিটামিন খেতে বলেনএ সময় প্রচুর পানি পান করতে হয়দিনে হিসেব করে অন্তত ৫ লিটার পানি পান করতেই হবে

তবে অনেকে আবার এই পদ্ধতির ঘোর বিরোধী অনেকের মতে এই ধরনের ডায়েট করলে প্রাথমিকভাবে ওজন কমলেও পরবর্তীতে ওজন বৃদ্ধি পায়এবং একেকজনের  শারীরিক মেটাবলিজম একেক রকম হওয়ার কারনে এই পদ্ধতি সবার ক্ষেত্রে সমান কাজ করেনা

তথ্যসূ্ত্র

(1)          The Health Nerd

(2)           Women’s corner

(3)          Prothom  Alo 

 

Feature Photo Source: Health.harvard.edu

Leave a comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *