এই রমজানে নিজেকে ভাল রাখতে যা যা খাবেন

 

বছর ঘুরে রহমত ও বরকতের মাস রমজান আমাদের মাঝে আবার আগমন করেছে। বিশ্বের প্রায় ১.৮৪ বিলিয়ন মুসলিম এরই মধ্যে মাসটিকে স্বাগত জানিয়েছেন। এ মাস কুরআন নাযিলের মাস, মুসলানদের মাগফেরাতের মাস, জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্তির মাস। আল্লাহ মহাগ্রন্থ আল কুরআনে বলছেন,

“রমজান মাস-এতে নাযিল করা হয়েছে কুরআন, যা বিশ্ব মানবের                  জন্য হেদায়াত এবং সৎপথের সুস্পস্ট নিদর্শন আর সত্য মিথ্যার পার্থক্যকারী।            সুতরাং তোমাদের মধ্যে যারা এ মাস পাবে তারা যেন সিয়াম পালন করে। ”

– ( আল কুরআন, ০২ঃ১৮৫)

তাই একজন মুসলিমের কাছে এ মাসটি সাধারণ কোন মাস নয়।  এ মাসে একজন মুসলিম ফজরের উদয়লগ্ন থেকে সুর্যাস্ত পর্যন্ত পানাহার থেকে বিরত থাকেন, কিয়ামে রমজান-তারাবিহ আদায় করেন, নফল ইবাদাত করেন। তাই তার প্রচুর শক্তির প্রয়োজন। আবার আমরা যারা কর্মজীবি তাদের সারাদিন কাজে-কর্মে ব্যস্ত থাকতে হয়। এতে প্রচুর ক্যালরি খরচ হয়। তাই এই মাসে সুস্থ-সবল মোটকথা এনার্জি লেভেল হাই রাখতে চাই সুষম খাদ্য গ্রহণ।

এবার আসুন জেনে নিই রমজানে সুস্থ থাকতে যা যা খাবেন-

  • পানি, পানি এবং পানিঃ বিশেষজ্ঞদের মতে, ইফতার এবং সেহেরিতে আমাদের প্রচুর পানি পান করা উচিত। বিশেষ করে আবহাওয়া যদি হয়  উত্তপ্ত। ২-৩ লিটার পানি পান নিশ্চিত করা দরকার।
  • খাবারের পুষ্টিমানে ভারসাম্যঃ আপনার খাবার ম্যেনুতে যাতে বিভিন্ন খাদ্য উপাদানের সংমিশ্রণ থাকে সেদিকে খেয়াল রাখুন। কার্বহাইড্রেট, প্রোটিন, মিনারেল, ভিটামিন ইত্যাদি মিলিয়ে ম্যেনু বাছাই করুন। অধিক জলীয় উপাদান সমৃদ্ধ খাবার যেমনঃ শশা, আপেল ইত্যাদি অবশ্যই রাখুন।

    Photo Source: Organicfacts.net
  • সুন্নাহর মধ্যেই কল্যাণ নিহিতঃ খেজুর দ্বারা ইফতার করা সুন্নাহ( মুসনাদে আহমাদ ও আবু দাউদ)। আর সুন্নাহর মধ্যেই আল্লাহ পাক বিবিধ কল্যাণ রেখেছেন। Organicfacts.net এর দেয়া তথ্য মতে খেজুরে রয়েছে- ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, কপার, আয়রন, সালফারসহ নানা মিনারেল এবং ভিটামিন। যা আমাদের দেহের অবসাদ দূর এবং রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে। তাই আমরা এ সুন্নাহকে অবশ্যই গুরুত্ব দিব।
  • ইফতারে চাই সুষম খাবারঃ ইফতারে খেজুর এবং পানির সাথে ফল, টকদই রাখতে পারেন। দই হজমে সাহায্য করবে। সাথে ভাত, সবজি এবং  মাছ রাখতে পারেন।
  • হালকা ব্যয়ামঃ রমজান মাসে হালকা ওয়েট লিফটিং বা হাঁটাহাঁটি শরীর ফিট রাখতে অনেকটাই সহায়ক হতে পারে।

পরিশেষে, আল্লাহ পাকের দরবারে সকলের সুস্থতা কামনা করি এবং সকলের রমজানের কবুলিয়াত কামনা করি। আর ভুলে যাবেন না দোয়া মুমিনের হাতিয়ার। তাই দুনিয়াবি আসবাব গ্রহণের সাথে আল্লাহর দরবারে দোয়া, রোনাজারি চালিয়ে যাবেন। যাতে তিনি আমাদের সুস্থভাবে এবং ইখলাসের সাথে রমজানের খায়ের- বরকত লাভের তাউফিক দান করেন।

রেফারেন্সঃ

১। আল-জাজিরা ইংলিশ

২। অরগানিক ফ্যাক্টস ডট নেট

৩। আল-কাউসার ডট কম

৪। কুরআন ও সুন্নাহর আলোকে রমজান- ড. মানজুরে ইলাহী

 

Feature Photo Source: Masala.com

Leave a comment

আবু আবদুল্লাহ

মুক্তটাকে আহরণে জ্ঞান সমুদ্রে ডুব দিতে চায় বার বার, আমরণ! আর ভাঙ্গাচোরা কলম দিয়ে একটুখানি কসরতের চেস্টা করে যেতে চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *