ইমাম নববী (রহঃ): বইপ্রেমী এক আলেমের কথা

ইমাম নববী(রহঃ)। ছোটবেলা থেকেই ইলমের প্রতি তার ছিলো সীমাহীন দরদ। সমবয়সী ছেলেরা তাকে জোর করে খেলতে নিয়ে গেলে তিনি কান্না শুরু করে দিতেন। শৈশবে একবার এক শায়খ লক্ষ্য করলেন, কিছু ছেলে খেলা-ধুলা করছে আর তিনি কিছুটা দূরে মন খারাপ করে বসে আছেন। শায়খ কাছে এসে জিজ্ঞেস করলেনঃ বালক তুমি খেলছো না কেন? তিনি জবাব দিলেনঃ আমার রব আমাকে খেলা-ধুলার জন্য সৃষ্টি করেননি।
.
ব্যক্তিগতভাবে ছিলেন অসম্ভব বিনয়ী। সাদাসিধে। ছাত্রদের কাছ থেকে কোনো অর্থ নিতেন না। কোনো সেবাও নিতেন না। উল্টো ছাত্রদের সেবা করতেন। হালাল-হারামের উপর ছিলো সজাগ দৃষ্টি। বাবা যা খাবার পাঠাতেন তাই খেতেন। বলা হয়ে থাকেঃ টানা দুই বছর তিনি সোজা হয়ে ঘুমাননি। রাতের বেলা পড়তে কিংবা লিখতে থাকতেন। খুব ঘুম পেলে বইয়ের উপর মাথা রেখেই ঘুমিয়ে যেতেন। অনেক ছোট একটা কক্ষে থাকতেন। পুরো ঘরটা ছিলো বইয়ে ভরা। অন্য কেউ প্রবেশ করলে তাকে স্থান দিতে অনেকগুলো বই সরাতে হতো।
.
বেশ কয়েকটি মূল্যবান বই লিখে গিয়েছেন। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছেঃ রিয়াদুস স্বলেহীন, চল্লিশ হাদীস। দুটো বইই খুব জনপ্রিয়। বিশেষ করে “চল্লিশ হাদীস” বইটাতে উনি অনেক তাৎপর্যময় হাদীসগুলো একত্র করেছেন। মজার ব্যাপার, বইটার নাম চল্লিশ হাদীস হলেও এতে হাদীস রয়েছে বিয়াল্লিশটি। বইটির উপর অনেক লেকচার রয়েছে, ব্যাখ্যামূলক বই রয়েছে। যেমনঃ শায়খ আসিম আল হাকিম এই বইয়ের উপর ৩৯ পর্বের লেকচার দিয়েছেন পিসটিভিতে। সিরিজটির নামঃ Al-Arbaeen An-Nawawiyyah।
.
মারা গিয়েছেন প্রায় ৮০০ বছর আগে। মাত্র ৪৫ বছর বয়সে। কিন্তু ভালোবাসায় মানুষ আজো মনে রেখেছে তার নাম। বলা হয়ে থাকে, তিনি জীবনের এক মূহুর্ত সময়ও নষ্ট করেননি। সময়ের দাম দিয়ে আমাদের নিকট দামী হয়ে আছেন। মৃত্যুর পর তার জীবনকালকে তার বইয়ের সংখ্যা দিয়ে ভাগ করা হয়। দেখা গেলো, উনি প্রত্যেকদিন ২০ পৃষ্ঠা করে লিখতেন।
.
ইলমের ভালোবাসায় আজীবন চিরকুমার ছিলেন। একবার তাকে এক ব্যক্তি জিজ্ঞেস করল: আপনি বিয়ে করেননি কেন?
উনি জবাব দিলেনঃ ভুলে গিয়েছি।

লিখেছেনঃ শিহাব আহমেদ তুহিন

Feature Photo Source: Brookings.edu

 

Leave a comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *