রংধনু কেন ওঠে ?

আসলে এক পশলা বৃষ্টি হয়ে যাবার পরও আকাশে কিছু পানির কণা ভাসতে থাকে৷ যেদিকে সূর্য থাকে তার বিপরীত দিকের বায়ুতে যে পানির কণা থাকে সে কণা ভেদ করে আলো পৃথিবীতে আসার সম কিছু পরিমাণ আলো দিক পরিবর্তন করে বেঁকে যায়।  সূর্যের আলোর রং সাদা যা আসলে সাতটি বর্ণের সমষ্টি৷  আলো বেঁকে যাবার সম বাঁকা হবার কোণ এবং আলোর তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের উপর নির্ভর করে সূর্যরশ্মি সাতটি রঙে বিভক্ত হয়ে যা৷ যেমন নিচের ছবিটি দেখলে খুব সহজেই বুঝবে যে আলোর যে রশ্মিটি তোমার চোখে ৪২ ডিগ্রি কোণে এসে পড়বে তা আমরা লাল রং হিসাবে দেখতে পাই৷  লাল রঙের আলো সবচেয়ে কম বাঁকে এবং সবচেয়ে দ্রুত পৌঁছে৷

Photo Source: The physics Classroom

আবার বেগুনি রঙের ক্ষেত্রে এটি ৪০ ডিগ্রি হয়।  এটি তাই সবচেয়ে বেশি বাঁকে৷ বাকী রংগুলো ৪০-৪২ ডিগ্রির মাঝে থাকে৷  আর এভাবেই পানির কণার উপরে পড়া সূর্যের আলো পড়ে বিভিন্ন কোণে বেঁকে গিয়ে তৈরী হইয় সাতটি রঙের সুন্দর আলোর ছটা৷

 

Feature Photo Source: Pixabay.com

Leave a comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *