পিঁপড়া নিয়ে চমৎকার ৮টি ফ্যাক্টস

পৃথিবীর ছোট্ট একটা প্রাণীর নাম এই পিঁপড়া। আরেক নাম পিপীলিকা। আমাদের কোননা কোন ভাবে রোজই এই পিঁপড়া সাথে সাক্ষাৎ হয়। আকারে ক্ষুদ্র হলেও জ্বালাতে একদম ওস্তাদ। যদি চিনির বয়ামে একটু ফাঁকা থাকে কিংবা যদি কোথাও খাবারের কিছু অংশ পরে থাকে তাহলেই হয়েছে। পিঁপড়ার আক্রমণ সেখানে হবেই।

      Photo Source: Thesun.co.uk

আজকের এই আর্টিকেলে আমরা পিঁপড়া নিয়েই চমৎকার আটটি না জানা কথা জানবো।

১/ বিজ্ঞানীদের অনুমান মতে পৃথিবীতে পিঁপড়ার সংখ্যা প্রায় ১০,০০০,০০০,০০০,০০০,০০০ এর কাছাকাছি।

২/ প্রজাতি হিসাব করলে পৃথিবীতে একজন মানুষের বিপরীতে প্রায় ১২,৫০০ প্রজাতির পিঁপড়া রয়েছে। আর সংখ্যার হিসেবে একজন মানুষের বিপরীতে পৃথিবীতে পিঁপড়া আছে প্রায় এক মিলিয়ন।

৩/ অবিশ্বাস্য মনে হলেও শারীরিক আকৃতির তুলনায় পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিশালী প্রাণী হচ্ছে পিপীলিকা। পিপীকিকারা তাদের শরীরের ওজনের থেকে ১০-৫০ গুণ ভারী বস্তু বহন করতে পারে।

৪/ অবাক লাগলেও এটাই সত্যি যে পৃথিবীতে মানুষের পাশাপাশি পিঁপড়াই একমাত্র প্রাণী যারা কৃষিকাজ করে অর্থাৎ অন্য প্রাণী লালন-পালন করে। আমরা মানুষেরা যেমন গরু, ছাগল, মুরগি লালন-পালন করি ঠিক তেমনি পিঁপড়ারাও বিভিন্ন পোকা বিশেষ করে জাবপোকা লালন-পালন করে।

Photo Source: Familyhandyman.com

৫/ অন্যান্য পোকামাকড় থেকে পিঁপড়া সবচেয়ে বেশিদিন বাঁচে। পিঁপড়ার আয়ুষ্কাল প্রায় ত্রিশ বছর।

৬/পৃথিবীর সব পিঁপড়ার ওজন পৃথিবীর প্রায় সব মানুষের ওজনের সমান।

৭/ পিঁপড়াদের মধ্যে যারা সৈন্য এবং শ্রমিক হিসেবে কাজ করে তারা সবাই নারী পিঁপড়া।

৮/

  পলিয়েরগাস লুসিডাস প্রজাতির পিঁপড়া।
  Photo Source: wikimedia.org

পলিয়েরগাস লুসিডাস নামের এক প্রজাতির পিঁপড়া রয়েছে যারা অদভুতভাবে বিভিন্ন পিঁপড়া কলোনি আক্রমণ করে তারপর সেই কলোনির পিঁপড়াদের বন্দী করে এবং তাদের আদেশ অনুযায়ী কাজ করতে বাধ্য করে। অর্থাৎ এরা অন্য পিঁপড়াদের দাস বানিয়ে রাখে।

Feature Photo Source: Pixabay.com

Leave a comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *